খোকন মাহমুদ >> কবিতাগুচ্ছ

0
264

খোকন মাহমুদ >> কবিতাগুচ্ছ

 

[সম্পাদকীয় নোট : আজ নব্বই দশকের কবি খোকন মাহমুদের জন্মদিন। তীরন্দাজের পক্ষ  থেকে তাঁকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা।]

 

সীমান্ত
জানালা, এই মাত্র তার ডানা মেলবার অনুমতি পেলো
বাতাসকে শাসিয়ে লাভ নেই
সৌন্দর্যের কাছে ফুল তোলা হাতপাখাগুলো –
নামিয়ে রেখেছি
আজ কেন মনে হলো-জল বাসনের কারুকার্য্য থেকে
কেন যে মুখ ফিরিয়ে রেখেছে!
সন্ধ্যার আগেই দুলে উঠুক সবুজ পাতারা
জানালা দ্যাখো-হলুদ আলোয় কীভাবে ভিজে যাচ্ছে গাছ!

 

ব্যাক্তিগত ছদ্মবেশ
জানি আবার ফিরে যেতে হবে
অন্ধকারে ডুবে আছে কান্নাভর্তি জাহাজ
ঘাম ও সমুদ্রের সাথে একাকার হয়ে আছে
ব্যাক্তিগত ছদ্মবেশ
তোমাকে জাগিয়ে দ্যায় র্ধূত ইতিহাস
তারা কি জানেনা –মানুষ কখনোই আকাশ হতে পারবে না
আমরা তো জানি-কষ্টের নামে কোন স্বতন্ত্র্য মাতৃভাষা নেই
কারখানা
সংঘ সাপ, শহর জুড়ে উদ্বাস্তু আগুন ও উত্তাপ…
কালোজিরার বন– আমার ঘুম পাচ্ছে খুব
মাঠে মাঠে উগলানো ডানা, ঠান্ডা ভাত
হাতে হাতে কথা বিক্রির প্রস্রবণ
ধিরিঙি মেঘের উপর আমাদের ছোট-ছোট
কথাগুলো তো ছিলই, তোমাদের তখন অনেক অনেক-
পাতাদের শোক
তবুও অন্ধ দেয়ালের উপর জেকে বসে নগ্ন কারখানা
তোমরাও তো চেয়েছিলে– অগন্য মৃত্যুর উৎসব বন্ধ হোক
তোমরাও তো চেয়েছিলে– পরিচিত জলগুলো এভাবেই ঘুমাক
তবুও দ্যাখো – ঝাক ঝাক উড়ে আসে যুদ্ধবিমান …

 

নুন ও রান্নাঘর
আধভাঙা নদী, মাঝে একখানা সামাজিক সাঁকো …
আর আমরা কতদিন এভাবে জংশনের ভেতর
জলকারবারি করবো!
আর কতদিন– জয় ইলিশ সর্ষে!
আলোগুলো ফুটে উঠেই-
অজস্র ঘুম, অন্ধ কুসুম
একটি সূর্যাস্তের ভেতর কেবলই হাত-পা ছুঁড়ে যাচ্ছি
অকস্মাৎ কি ভেঙে পড়বে নুন ও রান্নাঘর!

যুদ্ধের বিপরীতে দাঁড়িয়ে

বলাই চলে এ যুদ্ধ আমাদের। নিচে আধভাঙা ছই
নৌকো, বাঁক খাওয়া জল,তরমুজ, কাটা আঙুল থৈই থৈই…
এই রকম দৃশ্যের মধ্যে যেতে যেতে মনে হলো–
কেন বৃষ্টির মধ্যে আমাদের মাথাটুকু বাঁচিয়ে রাখি!
কেন পাতাদের বলিনা– এই ঘোর সন্ধ্যায় তুমি একটু
বিভাস ছড়াও!
কেন মনে হলো– পথটুকু আমারই ছায়া মেখে কেন দৌড়য় …!