রিসতিয়াক আহমেদ‌ > শালুক সাহিত্যসন্ধ্যার তৃতীয় আয়োজন ২৮ জুন >> সাহিত্য সংবাদ

0
479

রিসতিয়াক আহমেদ‌ > শালুক সাহিত্যসন্ধ্যার তৃতীয় আয়োজন ২৮ জুন >> সাহিত্য সংবাদ

আলোচনার বিষয়আশয়
লিটল ম্যাগাজিন ‘শালুক’। সবসময় নতুন ভাবনা ও প্রচলিত চিন্তা চেতনার বিপরীতে যার অবস্থান। ২০ বছরে পদার্পণ উপলক্ষে শুরু হয়েছে নিয়মিত মাসিক সাহিত্যসন্ধ্যা  ‘প্রতিস্রোত’। প্রতিমাসের প্রথম শুক্রবার অনুষ্ঠানটি আয়োজন করার কথা থাকলেও পবিত্র ঈদ উপলক্ষে প্রতিস্রোতের তৃতীয়সন্ধ্যা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আগামী ২৮ জুন বিকেল ৪টায়, শাহবাগ পাঠক সমাবেশ কেন্দ্রে। বরারবরের মতোই নতুন কিছু বিষয়ের সমাহার থাকছে এবারের সাহিত্যসন্ধ্যায়। মূল আলোচ্য বিষয়ের ওপর প্রবন্ধপাঠ, আলোচনা, বইবারতা, কবিদের কবিতা পাঠ এবং গল্প থেকে পাঠ। প্রথম দুই আয়োজনের প্রধান আলোচ্য বিষয় ছিল ছিল ‘সাম্প্রতিক সময়ে লিটল ম্যাগাজিন চর্চার প্রাসঙ্গিকতা ও অপরিহাযর্তা’ এবং ‘সাহিত্যে স্বতন্ত্র স্বর : নির্মাণ বিনির্মাণ’। আর তারই ধারাবাহিকতায় এবারের মূল আলোচ্য বিষয় থাকছে ‘সাহিত্যের উদার প্রান্তর : ঐতিহ্যিক উপাদান এবং আন্তর্জাতিকতা’। এ বিষয়ে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন কবি ও প্রাবন্ধিক খালেদ হামিদী। আলোচনা করবেন কবি-প্রাবন্ধিক মাহফুজ আল-হোসেন, কবি সরদার ফারুক, কবি ও শালুক সম্পাদক ওবায়েদ আকাশ এবং কবি শাহেদ কায়েস।
গল্প ও কবিতাপাঠ
অন্য পর্বে থাকবে গল্প থেকে পাঠ। গল্প পাঠ করবেন কবি, গল্পকার ও অনুবাদক হাইকেল হাশমী, কথাসাহিত্যিক অনন্ত মাহফুজ, কথাসাহিত্যিক কাজী রাফি, কথাসাহিত্যিক ম্যারিনা নাসরিন, কথাসাহিত্যিক নুরুন্নাহার লিলিয়ান ও তরুণ গল্পকার মুহিম মনির। ফাঁকে ফাঁকে চলবে নির্বাচিত কবিদের কবিতা পাঠ। কবিতা পড়বেন মাসুদুজ্জামান, জাহিদ হায়দার, মাহবুব কবির, ওবায়েদ আকাশ, রোকসানা আফরীন, শোয়াইব জিবরান, জুনান নাশিত, ভাগ্যধন বড়ুয়া, চন্দন চৌধুরী, মনিরুজ্জামান মিন্টু, এমরান কবির, ফেরদৌস মাহমুদ, আদিত্য নজরুল, আফরোজা সোমা, শেলী সেনগুপ্তা, গৌতম কৈরী, মনিরুল মোমেন, শ্যামল চন্দ্র নাথ, কৌস্তুভ শ্রী, মন্দিরা এষ, শ্বেতা শতাব্দী এষ, মাহফুজা অনন্যা, নাসরিন সিমি, ডালিয়া চৌধুরী, আমির হামজা ও রিসতিয়াক আহমেদ।
বইয়ের আলোচনা
প্রতি বছর বইমেলায় অসংখ্য বই প্রকাশিত হয়। এবং অসংখ্য সস্তা ও গড্ডলিকায় আবদ্ধ বইয়ের ভিড়ে নতুন এবং ব্যাতিক্রমধর্মী শিল্পসম্মত বইয়ের নাম অজানাই থেকে যায়। এমন কিছু মানস্মত বইয়ের খবর নিয়ে থাকছে বইবারতা। বইবারতায় আলোচনায় থাকছে– খালেদ হামিদীর প্রবন্ধের বই ‘চেনা কবিতার ভিন্ন পাঠ’, সরকার আবদুল মান্নানের প্রবন্ধের বই ‘শিক্ষা আলোকিত প্রজন্ম’,  ওবায়েদ আকাশ সম্পাদিত সাক্ষাৎকার সংকলন ‘পাঁচ দশকে বাংলাদেশ : সাহিত্য সংস্কৃতি সমাজ ভাবনা’ (বিশিষ্ট কবি-লেখক-বুদ্ধিজীবীর সাক্ষাৎকার সংকলন), ভাগ্যধন বড়ুয়ার কবিতার বই ‘লাভ লেইন’,  কবীর হোসেনের কবিতার বই  ‘মুদ্রিত শিহরণ’ এবং অরবিন্দ চক্রবর্তীর কবিতার বই ‘রাত্রির রঙ বিবাহ’। অনুষ্ঠানে উদ্বোধনী সঙ্গীত গাইবেন শুক্লা রায়।
ওবায়েদ আকাশ : ‘লিটল ম্যাগাজিনের বিকল্প নেই’
শালুক সম্পাদক কবি ওবায়েদ আকাশ বলেন, ইতিমধ্যে আমাদের আড্ডার অপরিহারযতা তৈরি হয়েছে। প্রতিস্রোত তরুণদের মধ্যে সাড়া জাগাতে পেরেছে। লিটল ম্যাগ্যাজিন-কেন্দ্রিক লেখকরা এখন মুখিয়ে থাকে আবার কবে আড্ডা আলোচনা কবিতা ও গল্পপাঠ নিয়ে অনুষ্ঠিত হবে প্রতিস্রোতের পরবর্তী সাহিত্যসন্ধ্যা। আড্ডা সরাসরি যোগাযোগের একটি সিঁড়ি। যা অনলাইন ব্লগ বা ফেসবুকের মাধ্যমে সম্ভব নয়। আমাদের প্রযুক্তি ব্যবহারের পাশাপাশি সরাসরি সাহিত্যান্দোলনে জড়াতে হবে। সেক্ষেত্রে লিটল ম্যাগাজিনের বিকল্প নেই। শালুক ‘প্রতিস্রোত’-এর মাধ্যমে সে কাজটি করতে চায়।
মাসুদুজ্জামান : ‘দেশব্যাপী ছড়িয়ে পড়ুক’
দ্বিতীয় আযোজনে কবি-প্রাবন্ধিক মাসুদুজ্জামান শালুকের আড্ডার ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন, এ ধরনের আরো আড্ডার আয়োজন হওয়া দরকার। এবং সেগুলো হবে একেকটা একেক রকম হতে পারে। লেখকদের লিটল ম্যাগাজিনমুখী হয়ে সাহিত্যচর্চায় মনোনিবেশ করতে হবে। শালুক যে আড্ডার সূচনা করেছে তা দেশব্যাপী ছড়িয়ে দিতে হবে। আমি সবসময় এ ধরনের আয়োজনের সঙ্গে থাকতে চাই।
কেন্দ্র-প্রান্তের ব্যবধান ঘুচে গেছে
কোনো বিশেষ গোষ্ঠী বা মুখচেনা কিছু লেখকের সমাবেশ নয়, প্রতিস্রোত দেশের সব লেখকের লিটিলম্যাগ আন্দোলনের কেন্দ্র হয়ে উঠেছে। শালুক সম্পাদক কবি ওবায়েদ আকাশের কারণেই চমৎকার এই আয়োজনটি ইতিমধ্যে লেখক-পাঠকদের মধ্যে বিপুল জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। এর সর্বজনীন রূপটিই আকর্ষণ করছে সবাইকে। ঢাকার লেখকেরা কেন্দ্রে আর দেশের অন্যান্য এলাকার লেখকেরা প্রান্তে থাকবেন, প্রতিস্রোতই এই কেন্দ্র-প্রান্তের ব্যবধান ঘুচিয়ে দিচ্ছে। প্রতিটি আয়োজনেই উপস্থিত থাকছেন সারা দেশের লেখকেরা। স্বতঃস্ফূর্তভাবে লেখকেরা নিজেরাই এতে অংশগ্রহণ করছেন। যোগ দিচ্ছেন। বাংলাদেশে এই ধরনের আয়োজন এই প্রথম, সার্বিক অর্থে অভূতপূর্ব বলা যায়।
২৮ জুন ও ১২ জুলাইয়ের অনুষ্ঠানে প্রতিস্রোতে লেখকদের আন্তরিক আমন্ত্রণ, এমনটাই আহ্বান জানিয়েছেন কবি ওবায়েদ আকাশ।