আবু জাফর ওবায়দুল্লাহ ও বোরহানউদ্দিন খান জাহাঙ্গীরের কবিতা >> অনুবাদ : হাসনাত আবদুল হাই

0
63

মাগো, ওরা বলে
আবু জাফর ওবায়দুল্লাহ (১৯৩৪-২০০১)

“কুমড়ো ফুলে ফুলে
নুয়ে প’ড়েছে লতাটা, সজনে ডাঁটায়
ভ’রে গেছে গাছটা,
আর,আমি ডালের বড়ি
শুকিয়ে রেখেছি,
খোকা তুই কবে আসবি!)
কবে ছুটি?”
চিঠিটা তার পকেটে ছিল,
ছেঁড়া আর রক্তে ভেজা।
“মাগো, ওরা বলে,
সবার কথা কেড়ে নেবে
তোমার কোলে শুয়ে
গল্প শুনতে দেবে না।
বলো মা, তাই কি হয়?
তাইতো আসতে দেরি হ’চ্ছে।
তোমার জন্যে কথার ঝুড়ি নিয়ে
তবেই না আমি বাড়ি ফিরবো।
লক্ষ্মী মা, রাগ করো না,
মাত্র কো আর ক’টা দিন।”
“পাগল ছেলে”
মা পড়ে আর হাসে,
তোর ওপরে রাগ করতে
পারি!”
নারকোলের চিঁড়ে কোটে,
উড়কি ধানের মুড়কি ভাজে,
এটা সেটা আরো কতো কি!
তার খোকা যে বাড়ি ফিরবে
ক্লান্ত খোকা!

কুমড়ো ফুল
শুকিয়ে গেছে
ঝ’রে পড়েছে ডাঁটা;
পুইলতাটা নেতানো
“খোকা এলি?”
ঝাপসা চোখে মা তাকায়
উঠোনে-উঠোনে,
যেখানে খোকার শব
এখন
শকুনিরা ব্যবচ্ছেদ করে
এখন
মার চোখে
চৈত্রের রোদ
পুড়িয়ে দেয় শকুনিদের।
তারপর,
দাওয়ায় ব’সে
মা আবার ধান ভানে,
বিন্নি ধানের খৈ ভাজে,
খোকা তার
কখন আসে! কখন আসে!
এখন মার চোখে শিশির ভোর
স্নেহের রোদে
ভিটে ভ’রেছে।

Mother, they are saying
By Abu Zafor Obaidullah

The creeper has wilted
Under the weight of gourd’s flower,
The plant has been
Covered with Sojne stalk,
And, I have kept dried balls of pulse,
Khoka, when are you coming home!
When is your leave?”
The letter was in his pocket
Torn and blood-stained.
“Mother, they are saying,
The mother tongue will be banned
I will not be allowed to hear you
Telling me stories, snuggled in your lap.
Tell me mother, is that possible?
That is why I am delayed.
I will come home only after lots of things to tell you.
My sweet mother, please don’t be cross with me,
It is a question of few days only.
“Crazy, boy!”
The mother reads the letter and laughs,
“How can I be mad at you!”
She makes fine grains of dried coconut,
Sweet balls of Urki rice
And so many other snacks!
Her son is coming home,
Her tired son!
The gourd’s flowers
Are now dried up
The stalk has fallen on the ground
The creeper Pui lies wilted,
“Khoka, have you come?”
The mother looks at the
Courtyard searchingly,
The vulture dissects his corpse there.
Now the mother’s eyes, afire
With the sunlight of Choitra,
Burns the vultures.
Then,
She sits on earthen veranda
And again winnows paddy, fries
Khoi with Binny rice.
Her son may come anytime, no one can say! No one!!
Now the mother’s eyes look
Like a morning with dew,
The homestead is bathed
With rays of her affection.

অপরূপ বাঁশির মতো
বোরহানউদ্দিন খান জাহাঙ্গীর (১৯৩৬-২০২০)

ভালোবাসা জন্ম নেয় অপরূপ বাঁশির মতো এইসব রাতে
চাঁদ-পাগল রাত যখন হাওয়ার আশাতে
তার সুদূরের স্বাদভরা কথা হয়ে ওঠে
অপরূপ বাঁশির মতো চুল তার কপালে লোটে,

হৃদয়ের সব ভালোবাসা দুহাতে ধরে
সে আসে নির্ধারিত হয়ে
আমাকে পরিশুদ্ধ করে
অপরূপ বাঁশির মতো সুন্দর জয়ে
জীবনে সে বাজে,

ভালোবাসা পাগল হয়ে ওঠে তার কুশলী দুহাতে
অপরূপ বাঁশির মতো এইসব রাতে
তার মুখ মর্যাদার মতো তাকিয়ে কালোত্তর দিকে
দুহাতে কাল তার, নির্ধারিত আমি কালের আশাতে।

Like an enchanting flute
Borhanuddin Khan Jahangir

Love is born like an enchanting flute on nights like this
When the moon-struck night, caressed by wind,
Becomes its soliloquy with the taste of far away
And tresses of hair kiss the forehead like a melody.

It comes like destiny to purify me
Holding all love of the heart in both hands
Love sings like the enchanting flute, winning everything in life.

Love becomes desperate with its skilled hands
On nights like this
Its graceful face looks towards eternity
Holding time in both hands
Leaving me with my destiny blessed by hope.

Share Now শেয়ার করুন