আহসান হাবীব ও অরুণ মিত্রের কবিতা >> ইংরেজি অনুবাদ : হাসনাত আবদুল হাই

0
107

বাংলা ভাষার হৃদয় হতে >> এটি বাংলা থেকে ইংরেজিতে অনূদিত কবিতার সিরিজ। কথাসাহিত্যিক হাসনাত আবদুল হাই কর্তৃক অনূদিত এই কবিতাগুলো ধারাবাহিকভাবে তীরন্দাজে প্রকাশিত হচ্ছে। আজ প্রকাশিত হলো তাঁর অনূদিত কবি আহসান হাবীব ও অরুণ মিত্রের দুটি অনূদিত কবিতা।

আহসান হাবীব (১৯১৭-৮৫)

আমি কোনো আগুন্তুক নই

আসমানের তারা সাক্ষী
সাক্ষী এই জমিনের ফুল, এই
নিশিরাইত বাঁশবাগান বিস্তর জোনাকি সাক্ষী
সাক্ষী এই জারুল, জামরুল, সাক্ষী
পুবের পুকুর, তার ঝাকড়া ডুমুরের ডালে স্থিরদৃষ্টি
মাছরাঙা আমাকে চেনে
আমি কোনো অভ্যাগত নই
খোদার কসম আমি ভিনদেশী পথিক নই
আমি কোনো আগুন্তুক নই।
আমি কোনো আগুন্তুক নই, আমি
ছিলাম এখানে, আমি স্বাপ্নিক নিয়মে
এখানেই থাকি আর
এখানে মানে সর্বত্রই থাকা –
সারা দেশে।

আমি কোনো আগুন্তুক নই। এই
খররৌদ্র জলজ বাতাস মেঘ ক্লান্ত বিকেলের
পাখিরা আমাকে চেনে
তারা জানে আমি কোনো অনাত্মীয় নই।
কার্তিকের ধানের মঞ্জরী সাক্ষী
সাক্ষী তার চিরোল পাতার
টলমল শিশির, সাক্ষী জ্যোৎস্নার চাদরে ঢাকা
নিশিন্দার ছায়া
অকাল বার্ধক্যে নত কদম আলী
তার ক্লান্ত চোখের আঁধার
আমি চিনি, আমি তার চিরচেনা স্বজন একজন। আমি
জমিলার মা’র
শূন্য খা খা রান্নাঘর শুকনো থালা সব চিনি
সে আমাকে চেনে।
হাত রাখো বৈঠায় লাঙলে, দেখো
আমার হাতের স্পর্শ লেগে আছে কেমন গভীর। দেখো
মাটিতে আমার গন্ধ, আমার শরীরে
লেগে আছে এই স্নিগ্ধ মাটির সুবাস।

আমাকে বিশ্বাস করো, আমি কোনো আগুন্তুক নই।

দু’পাশে ধানের ক্ষেত
সরু পথ
সামনে ধু ধু নদীর কিনার
আমার অস্তিত্বে গাঁথা।আমি এই উধাও নদীর
মুগ্ধ এক অবোধ বালক।

Ahsan Habib
(1917-85)

I am not a stranger

The stars in the sky are my witness
So are the flowers of this soil, this
Bamboo clump at dead of night and many fireflies
Are my witness, so are this Jarul tree and the pond in the east,
The fixed-eyed Machranga bird sitting in the dense Dumur tree knows me
I am no stranger.
In the name of Khoda, I am no traveler from another place
I am not a stranger
I am not a stranger, I was here
According to the vogue in dreams
I live here and
Being here means to be everywhere
Throughout the whole country.

I am not a strange. The birds
In this scorching dun, humid air and tired afternoon
Know me well
They know I am a relative
The buds of paddy are my witness,
As is the dew on its fine leaves,
My witness is the shadow of Nishinda tree –
Covered in the shroud of moonlight.
Kadam Ali, bent by untimely ageing, the darkness
In his tired eyes are known to me, I am one of his
Very close relation. I am familiar with the empty plates
In the bare kitchen of Jomila’s mother
She knows me.
Place your hand on the oar or the plough –
You will find the touch of my hand, etched deep on them.
See the soil, moist with my smell, the fragrance of the cool soil
Is all over my body.

Believe me, I am no stranger.

The paddy field in view, the narrow aisle,
And the endless bank of the river ahead
Are all ingrained in myself; I am an innocent child
Of this river of no return.

অরুণ মিত্র (১৯০৯-২০০০)

লাল ইস্তাহার

প্রাচীরপত্রে পড়োনি ইস্তাহার?
লাল অক্ষর আগুনের হল্কায়
ঝলসাবে কাল জানো!
(আকাশ ঘনায় বিরোধের উত্তাপ
ভোতা হয়ে গেছে পুরানো কথার ধার!)
যুগান্ত উৎকীর্ণ; এখনি পড়ো
নতুন ইস্তাহার।

ভিড়ে ভিড়ে খোঁজো ফৌজ তো তৈয়ার
প্রস্তুত হাতিয়ার;
শক্ত মুঠোয় স্বর্গ ছিনিয়ে নেওয়া
দেবতারা পারে ঠেকাতে আর কি, বলো?
শৃঙ্খলে আসে সৈনিক – শৃঙ্খলা –
উঁচু কপালের কিরীট যে টলোমলো।

নিশ্বাস চাই, হাওয়া চাই, আরো হাওয়া!
এই হাওয়া যাবে উড়ে;
দেবতারা সাবধানী;
ঘোরালো ধোঁয়ায় হাঁপাবে অন্ধকার –
মানুষেরা হুশিয়ার!

ঘরের জানলা হয়ত বিপদ ডাকে;
মরচে-ধরা ও ঝিমোনো গরাদগুলো
গোপন রেখেছে কারাগার নাকি?
ঘরের মানুষ, মৃত রাত নয় ভুলো!

প্রাচীরপত্রে অক্ষত অক্ষর
তাজা কথা কয় শোনো –
কখন আকাশে ভ্রুকুটি হয় প্রখর,
এখন প্রহর গোনো!
উপোসী হাতের হাতুড়ীরা উদ্যত,
কড়া-পড়া কাঁধে ভবিষতের ভার;
দেবতার ক্রোধ কুৎসিত রীতিমতো –
মানুষেরা হুশিয়ার!

লাল অক্ষরে লটকানো আছে দেখ।

Arun Mitra (1909-2000)

The red manifesto

The manifesto on the wall, haven’t you read yet?
It will sizzle in red letters like flame
Tomorrow to be sure!
(The old words are blunted, they lost sharp edge,
Now the sky is rife with the heat of clash)
The turn of the era is in turmoil.

If you look around, you will find
The fighters are ready,
They are armed with weapons
They can snatch even heaven with their fist
The guardians will look helplessly at them
Chains have given them the skill of fighters
The crowns of the mighty are now shaken.

Need to breathe freely; air, need more air!
The guardians are clever, they will make air vanish,
Polluted air will make darkness pant –
Everyone, beware!

Perhaps, the windows signal the danger
Are the rusted and tired bars hiding prison cell?
O, inmates! Don’t think the night is dead!

The undaunted words on the wallpaper
Are alive with fresh news
Count the hours now
Watch when danger appears
Like a frown in the sky
In starving hands hammers are raised high
The burden of future is on injured shoulders
The wrath of gods are ugly, indeed,
Everyone, beware!

Hurry, read the new manifesto
The turn of the era is in turmoil
Read the new manifesto.

Share Now শেয়ার করুন