বহতা অংশুমালী মুখোপাধ্যায় > সিন্ধুলিপির পাঠোদ্ধার যেভাবে করেছি >> ইতিহাসচিন্তা

0
1071
প্রত্নতত্ত্বের ইতিহাসে এতদিন ধরে পড়া যায়নি এমন একটি লিপি হচ্ছে সিন্ধুলিপি। প্রায় সাড়ে চার হাজার বছর ধরে অন্ধকারে থেকে যাওয়া এই সিন্ধুলিপির পাঠোদ্ধার করে ইতিহাসবিদ ও প্রত্নতত্ত্ববিদদের আলোচনার কেন্দ্রে চলে এসেছেন বাঙালি মেয়ে বহতা অংশুমালী মুখোপাধ্যায়। ফলে, ভারতবর্ষের সভ্যতার অনেক কিছু এবার হয়তো জানা যাবে এই পাঠেরই সূত্রে। বাঙালি গবেষক, বেঙ্গালুরুতে থাকা কবি বহতা অংশুমালী এই লিপিপাঠের সূত্র খুঁজে পেয়েছেন। তবে অংশুমালী শুধু কবি নন, তিনি একজন সফটওয়ার ডেভেলপার। গবেষণা, বিশেষ করে সিন্ধুলিপি নিয়ে তাঁর আগ্রহ অনিঃশেষ। সেই সূত্রেই বলা যায়, গবেষণা করতে করতে সিন্ধুলিপির পাঠোদ্ধারে সাফল্য পেয়েছেন। এই সংবাদ ভারতে প্রকাশের সঙ্গে সঙ্গে তীরন্দাজের জন্য একটি লেখা লিখে পাঠিয়েছেন ইতিহাসের শিক্ষক প্রত্নতত্ত্ববিদ ড. মো. আদনান আরিফ সালিম। তীরন্দাজে সেটি প্রকাশিত হয়েছে। এরই সূত্র ধরে তীরন্দাজের পক্ষ থেকে আমরা অনলাইনে বহতার সঙ্গে যোগাযোগ করি এবং কীভাবে এই কাজটি তিনি করেছেন, জানতে চাই। আমাদেরই অনুরোধে এই আবিষ্কারের পূর্বাপর জানিয়ে বহতা আমাদের একটি ভিডিও পাঠান। আমরা ভিডিওটি তীরন্দাজের ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করে দিচ্ছি। নিচের লিংকে ক্লিক করে দেখুন সেই ভিডিওটি, শুনুন বহতার সিন্ধুলিপি আবিষ্কারের কথা। ভিডিওটি আপনাদের কেমন লাগলো, আমাদের সেকথা জানাতে ভুলবেন না। – মাসুদুজ্জামান, সম্পাদক, তীরন্দাজ।

এখানে ক্লিক করে শুধুমাত্র তীরন্দাজের জন্য পাঠানো বহতার ভিডিওটি দেখুন :

https://www.youtube.com/watch?v=lTKAEvwcrOE

আর নিচের লিংক থেকে পড়তে পারেন Nature পত্রিকায় প্রকাশিত বহতার গবেষণাপত্রটি

https://www.nature.com/articles/s41599-019-0274-1?fbclid=IwAR3KwNYcVW93-qc68bQEiU5w4AUkxi117j1_vuyEzsJrpLOWCSyU9tvgndE

Share Now শেয়ার করুন